অনুব্রত-হীন বীরভূম সফরে! পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে কী বার্তা দেবে মমতা?

অনেকদিন হল বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল গরু পাচার মামলায় জেলবন্দি রয়েছেন। রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে তাঁর জেলবন্দি দশা থেকে মুক্তি মিলবে না বলেই অনেকে মনে করছেন। এদিকে, রাজনৈতিক দিক থেকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বীরভূমকে কেন্দ্র করে ক্রমশ বাড়ছে জল্পনা। এবার সেই অনুব্রত-হীন বীরভূমে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনটাই সূত্রের খবর।

জানা গিয়েছে, চলতি মাসেই বীরভূম সফরে যাচ্ছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। ৩০ জানুয়ারি বীরভূমে যাওয়ার কথা রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। ৩১ জানুয়ারি তাঁর বীরভূমে প্রশাসনিক সভা করার কথা রয়েছে। সেই সভার পাশাপাশি একটি অনুষ্ঠানেও যোগ দেওয়ার কথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তবে, মুখ্যমন্ত্রীর রাজনৈতিক সভা হবে কিনা তা নিয়ে এখনও চূড়ান্ত কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি বলেই সূত্রের খবর।

এদিকে, বীরভূমে ইতিমধ্যেই দেউচা-পাচামি কয়লা খনি প্রকল্পের কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর এই বীরভূম সফরে এই প্রকল্পের জন্য আগ্রহী জমি দাতাদের পরিবারের সদস্যদের হাতে চাকরির নিয়োগ পত্র তুলে দেবেন। এর সঙ্গে শিল্প নিয়েও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী।

বর্তমানে বীরভূমের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার হেফাজতে। আবার এই পরিস্থিতিতে ক্রমশ এগিয়ে আসছে রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচন। তাই কেষ্ট-হীন বীরভূমে নিজেদেরকে শক্তিশালী করতে মরিয়া প্রয়াস চালাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। মনে করা হচ্ছে, এই সফরে প্রশাসনিক বৈঠকে একজোট হয়ে কাজ করার নির্দেশ দিতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী। যদিও এই সফরে পাখির চোখ দেউচা-পাচামি প্রকল্প।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কবে ভোট, এখন তা স্পষ্ট না হলেও ২০২৩ সালের নির্বাচন নিয়ে ইতিমধ্যে কোমর বেঁধে নেমে পড়েছে সব রাজনৈতিক দলই৷ নিজের এলাকায় বাড়িতে বাড়িতে পৌঁছে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে দলীয় নেতৃত্বকে৷ পাশাপাশি, প্রচারের কাঠামো তৈরির কাজও ইতিমধ্যে প্রায় সম্পূর্ণ করে ফেলেছে তৃণমূল৷

Latest articles

Related articles