Homeদেশঅর্ণব গোস্বামী ও সুপ্রীম কোর্টের বিরুদ্ধে ট্যুইট করে বিপাকে কমেডিয়ান কুণাল কামরা,...

অর্ণব গোস্বামী ও সুপ্রীম কোর্টের বিরুদ্ধে ট্যুইট করে বিপাকে কমেডিয়ান কুণাল কামরা, তবুও ক্ষমা চাইতে নারাজ

আদালতে অবমাননার অভিযোগ তার বিরুদ্ধে। তা সত্ত্বেও, স্ট্যান্ড-আপ কৌতুক অভিনেতা কুনাল কামরা মাথা নত করতে অস্বীকার করেছিলেন। শুক্রবার একটি নতুন পোস্টে সাফ বলেছেন, পুরো ঘটনার জন্য ক্ষমা চাওয়ার কোনও প্রশ্নই আসে না।

সুপ্রিম কোর্টে সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামীর জামিন দেওয়ার বিষয়ে তার বিরুদ্ধে তিনি একাধিকবার টুইট করেছেন। তার এই মন্তব্যে ফলে শীর্ষ আদালতের ভাবমূর্তি নষ্ট করার অভিযোগ উঠেছে ফলস্বরূপ তার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা করা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার অ্যাটর্নি জেনারেল কে কে বেনুগোপাল এ বিষয়ে অনুমতিও দিয়েছেন। কিন্তু কুনাল এখনও তার পদে অবিচল। তিনি টুইট করে লেখেন যে তিনি ভুল করেছেন, তা মানতে রাজি নন। তিনি কে কে বেনুগোপালকে সম্বোধন করে একটি দীর্ঘ চিঠি পোস্ট করেছিলেন। তিনি ক্যাপশনে লিখেছেন, “আইনজীবীর দরকার নেই, ক্ষমা চাইবেন না, জরিমানা হবে না, কোনও জায়গার অপচয় হবে না”।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার এক মামলায় অর্ণব গোস্বামীকে গ্রেপ্তার করেছিল মুম্বই পুলিশ। বম্বে হাই কোর্টে খারিজ হয়ে যায় তাঁর জামিনের আরজি। অবশেষে বুধবার সেই আরজি মঞ্জুর করে সুপ্রিম কোর্ট। আটদিন পর জেল থেকে মুক্তি পান রিপাবলিক টিভির এডিটর-ইন-চিফ। শীর্ষ আদালতের রায়কে স্বাগত জানানোর পাশাপাশি অনেকেই এই রায়ের বিরোধিতা করেন। উত্তাল হয় নেটদুনিয়া। রায়ের বিরোধিতা করতে গিয়ে বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়েরই নিন্দা করে বসেন স্ট্যান্ড আপ কমেডিয়ান কুণাল। অর্ণব জামিন পেতেই কমেডিয়ান কুণাল টুইটারে লেখেন, “ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় বিমান সেবিকা, তিনি ফার্স্ট ক্লাসের যাত্রীদের শ্যাম্পেন পরিবেশন করছেন। অথচ আমজনতা জানেন না, তাঁরা আদৌও সেই বিমানে কোনওদিন উঠতে পারবেন কি না।” এই টুইটের পরই তাঁর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা দায়েরের আরজি জমা পড়ে। তবে এতকিছুর পরও একই কথা আওড়ে যাচ্ছেন কুণাল। তাই অর্ণব-কুণাল তরজার জল যে ফের অনেক দূর গড়াবে, তা আন্দাজ করাই যায়।

ট্রেন্ডিং নিউজ