Home রাজনীতি দুর্নীতিগ্রস্ত তৃণমূলে থেকে কাজ করা যায় না, মমতার কোমরভঙ্গে বেসুরো বিধায়ক

দুর্নীতিগ্রস্ত তৃণমূলে থেকে কাজ করা যায় না, মমতার কোমরভঙ্গে বেসুরো বিধায়ক

একের পর তৃণমূল নেতার দলত্যাগ করার ফলে আসন্ন বিধানসভা ভোটের আগে প্রবল চাপে ঘাসফুল শিবির। এবার বেসুরো হলেন দুর্গাপুর পশ্চিমের তৃণমূল বিধায়ক বিশ্বনাথ পাড়িয়াল। তিনি অভিযোগ তুললেন, পদ পেলেও কাজ করা যায় না তৃণমূলে। দলের নেতারা দুর্নীতিতে যুক্ত। চাঞ্চল্যকর এই অভিযোগ, জেলা তৃণমূলের শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি হওয়া সত্বেও কাজ করতে দেওয়া হচ্ছে না তাঁকে। 

INTTUC-র প্রাক্তন সভাপতি প্রভাত চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন তিনি। বিশ্বনাথবাবুর অভিযোগ, প্রভাতবাবু কাজ করতে দিচ্ছেন না আমাকে। কাটমানি নিয়ে বহিরাগতদের বিভিন্ন কারখানায় নিয়োগ করছেন। অথচ স্থানীয় ছেলেমেয়েরা কাজ পাচ্ছেন না। এই অভিযোগ তুলে সোমবার দুর্গাপুরের একটি কারখানার সামনে অবস্থান বিক্ষোভ করেন বিশ্বনাথবাবুর অনুগামী। তাঁদের দাবি, স্থানীয়দের কাজের সুযোগ করে দিতে হবে।

বিশ্বনাথবাবুর অভিযোগ, দলের একাংশের মদতে বালি পাচারের সিন্ডিকেট চলছে। তিনি জানান, দামোদর থেকে বালি পাচারে যুক্ত দলেরই একাংশ।

উল্লেখ্য, দুর্গাপুরে তৃণমূলের অবস্থা মোটেও ভালো নয়। দুর্গাপুরে তৃণমূলের অবস্থা এমনিতেই খারাপ। ২০১৬ সালে  দুর্গাপুরের ২টি আসনেই হারে তৃণমূল। লোকসভা নির্বাচনেও একি অবস্থা। বিধানসভা নির্বাচনে হারের পর বিশ্বনাথবাবুকে INTTUC-র সভাপতি করে তৃণমূল নেতৃত্ব। ভোটের মুখে তাঁর বেসুরো হওয়া অস্বস্তিতে রাজ্যের বর্তমান শাসকদল তৃণমূল শিবির।

ট্রেন্ডিং নিউজ