Homeরাজনীতি'মেরে ওদের পা ভে’ঙে দিলি না?' কর্মীদের দাওয়াই অনুব্রতর

‘মেরে ওদের পা ভে’ঙে দিলি না?’ কর্মীদের দাওয়াই অনুব্রতর

আবারো সমালোচিত হতে হল অনুব্রত মণ্ডল কে। রেশন নিয়ে ফের উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে বীরভূমে। বেশ কিছুদিন ধরেই বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে জেলার বিভিন্ন ব্লকের কর্মীসভায় হাতজোড় করে ক্ষমা চাইছিলেন। বুধবার ময়ূরেশ্বর ১ নম্বর ব্লকের মল্লারপুরে বুথ ভিত্তিক কর্মীসভা চলাকালীন বিজেপি দলের কর্মীদের হাত-পা ভে’ঙে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। এলাকায় বিজেপির সমর্থকেরা নাকি তৃণমূলের পতাকা খুলে নিয়ে চলে যাচ্ছে। এমন কথা শোনা মাত্রই সভা চলাকালীন সময়ে রেগে ওঠেন অনুব্রত। তিনি বলেন, ” হাত পা নাই নাকি তোদের। নুঙ্গো হয়ে গেছিস নাকি।

বেরিয়ে পাগুলো ভেঙে দিলি না। ইয়ার্কি বটে নাকি। কাজ নায়, কম্য নায় ফ্ল্যাগগুলো খুলে নিয়ে চলে যাবে। আর তোরা দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখবি নাকি। এই শোন আমি মুখে যা বলতে পারি, কাজ কিন্তু বন্ধ রাখবি না। না হলে ছাড়বো না কিন্তু বলে রাখলাম।”

এছাড়া অনুব্রত বলেন, ” বিজেপি ঝামেলা করছে৷ আর তোরা ঠুঁ’টো জগন্নাথের মতো দেখছিস? তোদের হাত পা নাই? নাকি লু’লো হয়ে গেছিস নাকি? পিটিয়ে ওদের পা কোন ভে’ঙে দিলি না? কি বলছি, ইয়ার্কি মারে নাকি? কাজ নেই, কর্ম নেই, দলের পতাকা নিয়ে চলে যাবে৷ আর দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখবি নাকি তোরা?’এই শোন, আমি মুখে যা খুশি বলতে পারি৷ তোরা কাজ কিন্তু বন্ধ রাখবি না৷ নাহলে ঠ্যাং ভে’ঙে রাখবো, বলে রাখলাম৷’’

অনুব্রত এমন মন্তব্যের বিপরীতে বীরভূম জেলা বিজেপি সভাপতি শ্যামাপদ মন্ডল ফোন মারফতে জানান, “উনি বিজেপি কর্মীদের পা ভে’ঙে দেওয়ার হু’মকি দেবেন আর বিজেপি কর্মীরা বসে বসে দেখবে। উনি যদি বিজেপি কর্মীদের হাত পা ভে’ঙে দেন তাহলে ওনার হাত পা কে ঠিক রাখবে?”

তিনি আরো বলেন,” হাত-পা ভে’ঙে দাও, এই নিয়ে রাজনীতি করছে৷ আমি তো মিটিংয়ে গিয়ে শুনলাম, জনগণ বলছে, অনুব্রত মণ্ডল নাকি সাধারণ মানুষের কাছে ক্ষমা চাইছেন৷ মেম্বার যদি চু’রি করে থাকেন, তাহলে আমাকে ক্ষমা করে দিন৷ দিদিকে দেখে ভোট দেবেন, দিদিকে দেখে দল করবেন৷

আর আজ অনুব্রত মণ্ডল বলছেন, হাত-পা ভে’ঙে দাও৷ যদি তাই হয়, তাহলে অনুব্রতর হাত-পা কি ঠিক থাকবে? মহিলা নিরাপত্তারক্ষী রাখেন কোন? কোনও প্রভাবশালীদের মহিলা নিরাপত্তারক্ষী দেখি না তো? বীরভূম জেলায় অনুব্রত মণ্ডলের কি মহিলা ভয় রয়েছে? যদি বিজেপি কর্মীদের মা”রা হয়, তাহলে সাধারন মানুষকে ছেড়ে কথা বলবে না৷’’ এইভাবেই চলতে থাকে বাকবিতণ্ডা।

ট্রেন্ডিং নিউজ