Home বিনোদন অভিনেত্রী সায়নী ঘোষকে ‘যৌনকর্মী’ বলে আক্রমণ সৌমিত্র খাঁর

অভিনেত্রী সায়নী ঘোষকে ‘যৌনকর্মী’ বলে আক্রমণ সৌমিত্র খাঁর

চলচ্চিত্র শিল্পীদের একাংশের বিরুদ্ধে বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁর কুরুচিকর মন্তব্য কে কেন্দ্র করে নিন্দার ঝড় সোশ্যাল মিডিয়ায়। বুধবার পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষে দলীয় নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে সায়নী ঘোষ-সহ চলচ্চিত্র জগতের বেশ কিছু শিল্পীদের নজিরবিহীনভাবে আক্রমণ করলেন বিজেপির যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। তার বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করেছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস।

সভা থেকে সৌমিত্র বলেন, “সায়নী ঘোষরা ধর্মতলায় বসে নাটক করছে। তৃণমূলের চাকরে পরিণত হয়েছে কিছু অভিনেতা। যাঁরা যৌনপেশার সঙ্গে যুক্ত তাঁরা শিবলিঙ্গে কন্ডোম পরানোর কথা বলছে। কিছু ফিল্ম আর্টিস্ট যাঁরা দক্ষিণ কলকাতায় দু-লক্ষ টাকা করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে বেতন পায়, তাঁরা শিবলিঙ্গে কন্ডোম পরিয়ে শিব পুজো করার কথা বলছে। বলা হচ্ছে মা সরস্বতী যৌনকর্মী।” সৌমিত্র খাঁ আরও বলেন, “আমি সায়নী ঘোষকে বলতে চাই তোমরা এই ধরনের কথা বলছো। ধর্মতলায় বসে বসে নাটক করছ। আমাদের শিবলিঙ্গকে যাঁরা অপমান করে, আমাদের মা মনসাকে যারা অপমান করে তাঁরাই আসল যৌনকর্মী বলে মনে করি। সেজন্যই তারা এ ধরনের কথা বলছে। নইলে তারা এই ধরনের কথা বলতে পারে না। এই ধরনের অপমান করতে পারে না। যারা এধরনের কথা বলছে তারা যৌন পেশায় যুক্ত। আমার বিরুদ্ধে কেস করলে করতে পারো। তোমরা রাতের অন্ধকারে ভাল কিছু করো না। তাই এই ধরনের কথা বলছো।”

সোশ্যাল মিডিয়ায় ( ফেসবুক ) ঠান্ডা মাথায় এর জবাব দেন সায়নী। সায়নী লেখেন, ” সৌমিত্র বাবু, আপনার কষ্ট টা আমি বুঝি.. রাগে, শোকে আপনার ভারসাম্য হারানোটা খুবই স্বাভাবিক। আমি কে বা কি সেই সার্টিফিকেট টি আপনার কাছ থেকে আমি নেব না এবং আমি সব পেশাকেই সম্মান করি। ফলত, আপনি আমাকে বিশেষ ছোট করতে পারলেন না। তবে আপনি নিজে অনেকটা ছোট হলেন। এবার কাজের কথা বলুন, মন্দির, মসজিদ, গির্জা যা ইচ্ছে বানান, কিন্ত তার সাথে কয়েকটি স্কুল,কলেজ ,হাসপাতাল,কর্মক্ষেত্র তৈরি করতে পারলে, বাত বন যায়ে..ও ও হো বাত বন যায়ে।
কিন্তু না, আপনি সে নিয়ে কিছু বলতে পারবেন না.. কারণ আপনার কোন vision নেই, মানুষ কে সবসময় ভুল বোঝানো এবং ভাষণ পলিটিকসের বাদশা আপনি। by the way, scooty দেবেন খুব ভাল কথা, কিন্তু সেটা চলবে না তো, petrol diesel এর যা দাম… আপনি হয়ত ফ্রি তে পান তাই মাথা ঘামান না।
যা বুঝলাম মহিলাদের সম্মান করা আপনাদের রক্ততে নেই। এমনকি আপনার পরিবারের প্রাক্তন একজন কয়েকদিন আগেই এই অভিযোগটি করেছিলেন। আর আপনি এই কথাগুলো বলে সেটা আরো পরিস্কার করে দিচ্ছেন। যা বাংলার মা বোনেদের জন্য যথেষ্ট চিন্তার কারণ। আপনার ওপর মামলা করাই যায় কিন্তু বেফাস বা বোকা কথা বলার জন্য আপনার পার্টির লোক ই আপনাকে নিতে পারে না.. So, মোটামুটি সব বিষয়ই আপনার credibility = zero, তাই পাত্তা দিলাম না। ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করি আপনি তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠুন। আর যারা আপনাকে ভোট দিয়ে জিতিয়েছেন তাদের পাশে একটু দাঁড়ান ও দায়িত্ববান হোন। পুনশ্চ: আপনি সভাস্থল থেকে যেভাবে পুজো করার নিদান দিয়েছেন সেটা কেউ এই বাংলাতে কোনোদিনও বলেনি। আর ভবিষ্যতেও বলবেনা। কিন্তু এই প্রথম আপনার মুখ থেকে সেগুলো উচ্চারিত হলো। সত্যিকারের ঈশ্বর বিশ্বাসী হলে এই কথা গুলো বানিয়ে বলতেও আপনি অনেকবার ভাবতেন। “

ট্রেন্ডিং নিউজ