Home রাজনীতি ২১শে পদ্ম বানের জলে ভেসে যাবে

২১শে পদ্ম বানের জলে ভেসে যাবে

উনিশে ফোটা পদ্ম একুশের ভোটে বানের জলে ভেসে যাবে। দক্ষিণ দিনাজপুরের গঙ্গারামপুরে জনসভা থেকে এভাবেই বিজেপি বিরোধী আক্রমণে আরও শান দিলেন যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ।

বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদারের নাম করেই অভিষেকের বক্তব্য, ”উত্তরবঙ্গের অনেক জায়গায় উনিশের ভোটে পদ্ম ফুটেছে। আপনারা বালুরঘাটেই বিজেপি প্রার্থী সুকান্ত মজুমদারকে জিতিয়েছেন ভোট দিয়ে। কিন্তু জেনে রাখুন, একুশের ভোটে সব বানের জলে ভেসে যাবে।”একুশের আগে সংগঠনের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে চারদিনের সফরে উত্তরবঙ্গে গিয়েছেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

বুধবার রাতে মালবাজার থেকে দক্ষিণ দিনাজপুরে পৌঁছন তিনি। বৃহস্পতিবার গঙ্গারামপুর স্টেডিয়াম সংলগ্ন মাঠে জনসভা থেকে বিজেপি বিরোধিতায় একাধিক আক্রমণ শানালেন তিনি। ‘তোলাবাজ ভাইপো’ থেকে ‘বহিরাগত’ – এক সভায় জবাব দিলেন এই সবকিছুর। বললেন, ”বিজেপি নেতারা আমাকে বলে ‘তোলাবাজ ভাইপো’। আমি বলছি, তোলাবাজির প্রমাণ দেখান।

যদি তা পারেন, তবে এখানে ফাঁসির মঞ্চ গড়ুন, আমি মৃত্যুবরণ করব। কারণ, আমাদের সামনে আদর্শ ক্ষুদিরাম বসু। প্রাণ দিতে আমরা ভয় পাই না। তবে তার আগে প্রমাণ দিন তোলাবাজির।”অভিষেকের সভার আগে বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার পালটা তাঁকে দক্ষিণ দিনাজপুরে ‘বহিরাগত’ বলে কটাক্ষ করেছিলেন।

এদিনের সভায় তারও জবাব দিলেন অভিষেক। তাঁর কথায়, ”আমি বাঙালি, ব্রাহ্মণ সন্তান, আমাকে বলছে ‘বহিরাগত’! আর যাঁরা বাংলা বলতে, লিখতে, পড়তে পারে না, তাঁরা কী? আমি নাম করে বলছি, কৈলাস বিজয়বর্গীয় বহিরাগত। দিল্লির নেতারা পরিচালনা করবেন দিনাজপুরকে, গঙ্গারামপুরকে? মনে রাখবেন, বাংলা গুজরাট নয়।

বাংলায় গুজরাটের তল্পিবাহকতা করবে না। বাংলার মানুষ রক্ত দেবে, প্রাণ দেবে, তবু মাথা নোয়াবে না। বাংলার মাথা নোয়ানোর অর্থ আপনাদের সকলের মাথা হেঁট হওয়া। আপনারা কি তা চান?” বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে তাঁর আরও বক্তব্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বনাম নরেন্দ্র মোদির রিপোর্ট কার্ডের ভিত্তিতে হোক লড়াই।

ট্রেন্ডিং নিউজ