ভোটার আইডি হারিয়ে ফেললেও নো টেনশন! বাড়ি বসে এইভাবে বানান ডুপ্লিকেট কপি

যেকোনো ভারতীয় নাগরিকদের কাছে ভোটার আইডি কার্ডের (Voter ID Card) গুরুত্ব অপরিসীম। ভারতের নির্বাচন কমিশনের  দ্বারা প্রত্যেক ভারতীয়র এই জন্যই এই ভোটার আইডি কার্ড জারি করা হয়।  সামনেই আসছে  ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচন। তাই এই সময় কেউ যদি ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে ফেলেন বা কোন কারণে খুঁজে না পান তাহলে তাকে কিন্তু তার ভোট দেওয়াটাই মাটি হয়ে যাবে।

সকলেই জানেন এই ভোটার আইডি কার্ডেই  থাকে  ভোটারদের নাম,ছবি, ঠিকানা ভোটারদের জন্ম তারিখ ইত্যাদি একাধিক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। তাই এই ভোটার কার্ডের উপর শুধু নির্বাচনে ভোট দেওয়াই  নয় নির্ভর করে আরও একাধিক গুরুত্বপূর্ণ কাজ।  তাই  ভোটার আইডি কার্ডের সাহায্য ছাড়া এখনকার দিনে কোন কাজই করা সম্ভব নয়।  তাই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খোলা হোক কিংবা পাসপোর্ট বা ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরি করা সবেতেই প্রয়োজন হয় ভোটার আইডি কার্ডের।

তাই ভোটার কার্ড হারিয়ে গেলেই মহা সমস্যায় পড়তে হয় হবে যে কোন নাগরিককে। যদি কেউ এই ভোটার কার্ড হারিয়ে ফেলেন তাহলে তিনি বঞ্চিত হবেন একাধিক সুবিধা থেকেও । তাই এক্ষেত্রে সংগ্রহ করা যেতে পারে ডুপ্লিকেট (Duplicate) ভোটার আইডি কার্ড। এখনকার এই অনলাইনের (Online) জমানায় কোন কিছুই অসম্ভব নয়। তাই কেউ  চাইলে অনলাইনেই ভোটার আইডি কার্ডের একটি ডুপ্লিকেট কপিও পেয়ে যেতে পারেন। দেখে নিন আবেদন জানানোর পদ্ধতি।

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

১.পাসপোর্ট সাইজের ছবি

২.পরিচয়পত্র যেমন আধার কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, প্যান কার্ড

৩.ঠিকানার প্রমাণপত্র অর্থাৎ বিদ্যুৎ বিল, টেলিফোন বিল, ব্যাঙ্ক স্টেটমেন্ট

৪.ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে গেলে তার প্রমাণপত্র

 অনলাইনে আবেদন করার পদ্ধতি:

১.Google-এ গিয়ে ভারতীয় নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইট Election commission of india-তে যেতে হবে।

২. এরপর ‘Online Services’-এ ক্লিক করতে হবে

৩. সেখান থেকে Apply for Voter ID Card-এ ক্লিক করতে হবে

৪. এবার নিজের রাজ্যের নাম বেছে নিতে হবে

৫.এরপর ভোটার তালিকাভুক্তি নম্বর বা Voter Enrollment Number লিখতে হবে

৬. তারপর লিখতে হবে আধার নম্বর

৭. এরপর মোবাইল নম্বরে একটি OTP আসবে,সেই OTPটি লিখতে হবে

৮. এইভাবে আর যা যা তথ্য প্রয়োজন, সব লিখে ফেলতে হবে

৯. এরপর প্রয়োজনীয় সমস্ত নথি বা ডকুমেন্ট আপলোড করতে হবে

১০. সব শেষে এই আবেদন জমা দিতে হবে

আবেদনের খরচ:

এখানে বলে বিনামূল্যেই ডুপ্লিকেট ভোটার আইডি কার্ডের জন্য আবেদন করা যায়। কোনো টাকা খরচ না করেই ১৫-২০ দিনের মধ্যেই এই ডুপ্লিকেট ভোটার আইডি কার্ড পাওয়া যায়।

Latest articles

Related articles