স্বামীকে ভুলে ভাগ্নের সাথে শরীরী খেলায় মাতলেন মামী, দরজা বন্ধ করে দেখুন

আগেকার দিনে নিষিদ্ধ সিনেমা টেলিভিশনে অনেক রাত্রিবেলা দেওয়া হতো। তখন সকলে ঘুমিয়ে পড়তো, তখনই মানুষ এই ধরনের নিষিদ্ধ সিনেমাগুলি তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করতো। করোনার সময় যখন গোটা পৃথিবী একেবারে ঘরের মধ্যে বন্দি হয়েছিল। তখন মানুষ বিনোদনের জন্য ওয়েব প্ল্যাটফর্মকে কাজে লাগিয়েছিলেন। বিভিন্ন ওয়েব মিডিয়াতে অনেক সিরিজ রিলিজ হয়েছে, আর যার রস চেটেপুটে আস্বাদন করেছে দর্শক মহল। সেই রীতিটাই এখনো রয়ে গেছে। যতই সিনেমা হলে গিয়ে সিনেমা দেখুক না কেন বাড়িতে বসে সিরিজ দেখার যে একটা আলাদাই মজা রয়েছে, তা কিন্তু দর্শকরা ইতিমধ্যেই বুঝে গেছেন।

কখনোই এই ওয়েব সিরিজ গুলো সকলের সামনে দেখবেন না। তবে অবশ্যই আপনার প্রাইভেসি লাগবে। এই ধরনের ওয়েব সিরিজ গুলোকে দেখার জন্য কারণ ওয়েব সিরিজগুলোতে মাত্রা অতিরিক্ত শরীরী খেলা দেখানো হয়েছে, যা কিন্তু বড়দের সামনে বা ছোটদের সামনে একেবারেই আপনি দেখতে পারবেন না। তাইতো সম্প্রতি বোল্ড ওয়েব সিরিজ নিয়ে চর্চা কিছু কম হয় না, বিভিন্ন ওয়েব প্ল্যাটফর্ম যেমন উল্লু, প্রাইম শর্টস, সিনে প্রাইম তে শারীরিক সম্পর্ককে কেন্দ্র করে অনেক গল্প নিয়ে সিরিজ, রিলিজ করা হয়, যা দেখে দর্শক মহলের মধ্যে উন্মাদনার শেষ থাকেনা। উন্মাদনাকে বাঁচিয়ে রাখতেই এই ওয়েব সিরিজগুলো শুরু করা হয়েছে। যা দেখে নতুন প্রজন্ম রীতি মতন পাগল হয়ে যাচ্ছে।

অনেক ওয়েব সিরিজ এ প্রিয়া গামরে হলেন একজন ভারতীয় অভিনেত্রী এবং মডেল। যিনি মূলত উল্লু অ্যাপ ওয়েব সিরিজ এবং মারাঠি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য বিখ্যাত। যিনি মারাঠি চলচ্চিত্র মোকাম পোস্ট দানরি (2014), ব্ল্যাক হোম (2015) এবং মেড ইন মহারাষ্ট (2016)  এছাড়াও বিভিন্ন মারাঠি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।যিনি মূলত “গাছি” ওয়েব সিরিজে “মায়া” চরিত্রের জন্য সবচেয়ে বেশি পরিচিত।ধোবি কি দুলহান পেয়ার হে (2015) এ দারুন অভিনয় করেছেন।

আজ তার অভিনয় করা উল্লুতে কিছুদিন আগে রিলিজ হয়েছে ‘মাটকি’ ওয়েব সিরিজের ট্রেলার। যেখানে অভিনয় করেছেন প্রিয়া গামরে। আপনি যদি প্রিয়া গামরের অভিনয় এবং পর্দায় মনোমুগ্ধকর পরিবেশনা দেখে পাগল হয়ে যেতে হবে। তাহলে প্রিয়া গামরের এই ওয়েব সিরিজ আপনার খুব পছন্দ হবে। ওয়েব সিরিজের প্রতি মুহূর্তে রয়েছে অন্তরঙ্গতায় ভর্তি। উত্তেজক ডায়লগ আছে পরতে পরতে।

এই সিরিজটিতে ‘বিন্দু’ নামের এক মহিলাকে নিয়েই পুরো গল্প দেখা যাচ্ছে। বিন্দুর যে তার স্বামী এবং তার কাজের মেয়ের সাথে থাকে। কিন্তু বিন্দু বিছানায় তার স্বামীকে নিয়ে খুব একটা খুশি এবং সন্তুষ্ট নয়।

তারপর কিছুদিন পর বিন্দুর ভাগ্নে এসে অনেক দিন তাদের কাছে থাকতে শুরু করে। বিন্দু এবং ভাগ্নে শারীরিক চাহিদার জন্য একে অপরের প্রতি আকৃষ্ট হয়। আর তাদের মধ্যে মাখো মাখো শারীরিক সম্পর্ক হয়। এরপর কি হবে জানতে ওয়েব সিরিজটি আপনাকে অবশ্যই দেখতে হবে।

Latest articles

Related articles